আজব-সাফল্যের রহস্য!


৬৫ বছরের মি. স্যান্ডার্স যখন সোশ্যাল সিকিউরিটি অফিস থেকে বেরিয়ে এলেন, তাঁর মুখ শুকনো। হাতে একটি ১০৫ ডলারের চেক। এতে সারা মাস চলতে হবে।
সারা জীবন পাচকের কাজ করেছেন। সবাই তাঁর মচমচে চিকেনের প্রশংসা করে, অথচ এখন বিপাকে পড়ে হাবুডুবু খাচ্ছেন।

কেনটাকি শহরে এমন কোনো রেস্টুরেন্ট নেই, যেখানে তিনি যাননি। সবাইকে অনুরোধ, তাঁর রেসিপিতে যেন চিকেন বিক্রি করেন এবং তাঁর কমিশন এক নিকেল (৫ সেন্ট) দেন।

কেউই রাজি হলো না। ১০০৯টি প্রত্যাখ্যান। বৃদ্ধ কিন্তু হাল ছাড়লেন না। বললেন, ‘আমি নিজেই রেস্টুরেন্ট বানাব।’
জন্ম হলো কেএফসির ( Kentucky Fried Chicken ) ।

আজ পৃথিবীর ১২০টি দেশে ১৮০০০ শাখা আছে কেএফসির। মিলিয়ন ডলার মুনাফা।

পাঠক, কেন আমি আপনাকে এ কাহিনি শোনাচ্ছি?
বয়স কোনো ব্যাপার নয়। বয়স হলো একটি সংখ্যা।

আমি-আপনি হলে কী করতাম? কয় বছরই বা বাঁচব, নামাজ-রোজা আর তসবি হাতে নিয়ে সময় কাটাতাম, তাই না? মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে চিকেন বিক্রি করতাম না।

এটাই হলো সাফল্যের রহস্য। কখনও হাল ছেড়ে দেবেন না।

আপনি কি হান্টের নাম শুনেছেন? কোনো এক সময় তিনি পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী হিসেবে আত্মপ্রতিষ্ঠিত বিলিয়নেয়ার ছিলেন। তাঁকে এক টিভি সাংবাদিক জিজ্ঞেস করলেন, ‘আপনার সাফল্যের রহস্য কী বলুন তো?’

তিনি উত্তর দিলেন, ‘আপনি যদি সফল হতে চান, তিনটি জিনিস আপনার দরকার ।

ক. সিদ্ধান্ত নিন, আপনি জীবনে কী চান।

খ. আপনার কাঙ্খিত বস্তু পেতে কী মূল্য আপনাকে দিতে হবে।

গ. এবার মূল্য দিতে শুরু করুন।

সক্রিয় হোন। জীবন অনেকটা ক্যাফেটারিয়ার মতো, রেস্টুরেন্ট নয়। রেস্টুরেন্টে আপনি ঢোকেন, ধীরেসুস্থে ডিনার করেন, তারপর বিল পে করেন, তাই না? আর ক্যাফেটারিয়ায় আপনি নিজেকে নিজে সার্ভ করেন, খাওয়ার আগে পে করেন।

অনেক মানুষ মনে করে, আমি যখন জীবনে সফল হব তখন পে করব। এটা ভুল। আপনাকে আগে পে করতে হবে জীবনে সফলতা লাভ করতে। আপনি কি চুল্লির সামনে দাঁড়িয়ে বলবেন, আমাকে উত্তাপ দাও, আমি পরে জ্বালানি দেব?
জীবনে কোনো কিছু অর্জন করতে হলে আগে জ্বালানি দিতে হবে, পরে উত্তাপ পাবেন।

জিগ জাগলার নামের এক নামকরা বক্তা বলেছেন, ‘সাফল্যের দ্বারে পৌঁছানোর জন্য যে লিফট, সেটা হয়তো সব সময় কাজ করে না। তবে সিঁড়ি তো সব সময় খোলা, তাই না?’

আপনার ভেতরে যে প্রতিভা লুকিয়ে আছে তাকে ১০০% ব্যবহার করুন।

প্রতিদিন সকালে উঠে কোনো কাজ করার আগে লিখে ফেলুন আপনার জীবনের দশটি লক্ষ্য। সব সময় মনে মনে চিন্তা করুন, কী চান আর কী চান না।

আপনার কোনটা ভালো লাগে না সেটা নিয়ে অভিযোগ করবেন না। আমার কথা বিশ্বাস করুন, আপনার জীবনে যদি কোনো লক্ষ্য থাকে, সেটাই সব সময় উদ্বুদ্ধ করবে যে কোনো বাধা অতিক্রম করতে।

আপনি জানেন না আপনার ভেতরে কী সুপ্ত শক্তি আছে। মনের দরজা খুলে দিন।
আপনি সাফল্য লাভ করবেনই ।

উৎসঃ তারিক হক